ঈদের আগে সারাদেশে ভারি বৃষ্টি

দেশের ৬ বিভাগে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। সেই সঙ্গে দেশের ৩ বিভাগে মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।

সোমবার (১১ এপ্রিল) আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সারা দেশে সোমবার সকাল থেকে ২৪ ঘণ্টায় রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টিও হতে পারে।
আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুল ইসলাম  বলেন, একই সঙ্গে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি (২৩-৪৩ মি.মি./২৪ ঘণ্টা) থেকে ভারি (৪৪-৮৮ মি.মি./২৪ ঘণ্টা) বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।
এ ছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ী আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। সেই সঙ্গে সারা দেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে
গতকাল রোববার (১০ এপ্রিল) সারা দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে, ৩৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ সোমবার (১১ এপ্রিল) সকালে সারা দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল নিকলি ও ডিমলায়, ১৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
সোমবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বেশ কয়েকটি অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ রেকর্ড করা হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে শ্রীমঙ্গলে ৫৩ মি.মি.। এ ছাড়া নিকলিতে ৪৮, নেত্রকোনায় ১৪, দিনাজপুরে ১২, ডিমলায় ২৪, রাজারহাটে ২৬ মি.মি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।
আবহাওয়ার সিনপটিক অবস্থায় বলা হয়েছে, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।
আজ সকাল থেকে ঢাকায় দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হচ্ছে, যা অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়ায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। এদিন সকালে ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৮৪ শতাংশ।
ঢাকায় আজ সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৬টা ১৯ মিনিটে এবং আগামীকাল মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সূর্যোদয় ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে

Leave a Reply

Your email address will not be published.